চীনা পরিব্রাজক ফা হিয়েন

প্রাচীন ভারতে যেসব বৈদেশিক ভ্রমণকারীরা ভারতে এসেছিলেন, তাদের মধ্যে ফা-হিয়েন(337-422 খৃষ্টাব্দ) বিশেষ কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখে গেছেন| তিনি দ্বিতীয় চন্দ্রগুপ্ত মৌর্যের শাসনকালে ভারতবর্ষে আসেন|

ফা-হিয়েন


তিনি ভারতবর্ষের দীর্ঘকাল থাকার ফলে, যে অভিজ্ঞতার উপর নির্ভর করে বইটি লিখেছেন, তার নাম হলো "ফো-কো-কিং"| তিনি বইটিতে ভারতবাসীর জীবনযাত্রা তথা সামাজিক জীবনে উজ্জ্বল চিত্রগুলি স্ফুটিত করেছিলেন| 

তিনি বলেছেন, ভারতের সামাজিক ব্যবস্থা ছিল উন্নত এবং শ্রেণী বৈষম্য ততটা ছিল না| ফা-হিয়েন দ্বিতীয় চন্দ্রগুপ্তের শাসন ব্যবস্থার উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছিলেন| তিনি বলেছিলেন যে, অপরাধের শাস্তি তেমন ছিল না, শাস্তি হিসেবে শুধুমাত্র জরিমানাকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হতো| তিনি বিভিন্ন নগরের বর্ণনা করলেও পাটলিপুত্র নগরকে সব থেকে বড় নগর বলে বর্ণনা করেছিলেন|

ফা-হিয়েন যেহেতু ভারতীয় ভাষা জানা ছিল না, তাই তিনি অনেক কাল্পনিক ইতিহাস রচনা করেছেন| তিনি যে তার লেখনীর মধ্য দিয়ে প্রাচীন ভারতের ইতিহাসকে জ্বলন্ত এবং জীবন্ত করে তুলেছিলেন একথা সর্বাঙ্গে সঠিক এবং আমরা এই এবিষয়ে স্বমত পোষন করি|


তথ্যসূত্র

  1. সুনীল চট্টোপাধ্যায়, "প্রাচীন ভারতের ইতিহাস"
  2. Ashok. K Banker, "Ashoka: Lion of Maurya".

সম্পর্কিত বিষয়

সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ| আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো| আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন|
                     .......................................

    Note: Email me for any questions:

    :-Click here:-.

    Note:- please share your feedback:

    :--Click here:--.

    Your Reaction ?

    Share this post with your friends

    please like the FB page and support us

    Previous
    Next Post »

    Top popular posts