সুফিবাদ

Sufi শব্দটি আরবি শব্দ Suf(wool বা পশম) থেকে উদ্ভূত| প্রাথমিকভাবে সংসার ত্যাগী মুসলমানেরা উলের কেনা মোটা পোশাক ব্যবহার করত| দরবেশ, ফকির এবং অন্যান্যরা প্রথম সুফি  কথাটি ব্যবহার করেন এবং চিন্তা-চেতনা ও কর্ম সম্প্রদানের দ্বারা উন্নতির পথ নির্দেশ করেন| 

এইভাবে অষ্টম ও নবম শতাব্দীতে মুসলিম অতীন্দ্রিয়বাদ তথা সুফিবাদের জন্য প্রাথমিক স্তরে সুফিবাদের কোরআনের কিছু কবিতাকে অধিক গুরুত্ব দেওয়া হতো|

সুফিবাদ
কোরআন


মধ্যযুগে ভারতের ইতিহাসে হিন্দু ও মুসলিম ধর্মের মধ্যে চরম বিরোধ দেখা দিলে উভয় ধর্মের মধ্যে অতীন্দ্রিয়বাদের জন্ম হয়| এই ক্ষেত্রে ইসলামের অতীন্দ্রিয়বাদ হিসাবে সুফিবাদের ব্যাপক প্রচার হতে থাকে| এই সুফিবাদের মূল ভিত্তি গভীর আধ্যাত্মিক চেতনার মধ্যে নিহিত ছিল|

সুফিবাদ


ঐশ্বরিক চিন্তাধারা ও পাপ থেকে মুক্তি লাভের জন্য সুফিবাদের আধ্যাত্মিক, গণতান্ত্রিক, উদারনৈতিক চিন্তা ধারার অনুপ্রবেশ ঘটে ছিল| অমরজিৎ সিং সুফিবাদ সম্পর্কে বলেছেন, "The attempt of individual Muslim to realize in their person experience the living presences of Allah(Good)".



সুফিবাদের বৈশিষ্ট্য

সুফিবাদের কয়েকটি উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য হলো-
  1. সুফিবাদী বিশ্বাসী ব্যক্তি নিজের কোন লক্ষ্য ও ইচ্ছা নেই| প্রকৃত সুফি আল্লাহর নির্দেশে চলেন এবং তার কাছে পৃথিবীর সবকিছু আল্লাহর সৃষ্টি এবং জগৎ ঈশ্বরময়|
  2. সুফিরা বৈরাগ্যময়, ত্যাগ এবং পূর্ণ সন্ন্যাসকে অধিক গুরুত্ব দেয়| সরল জীবনযাপন সুফিবাদের অঙ্গ|
  3. তারা আল্লাহকে কঠোর বিচারক বা শাস্তিদাতা হিসাবে মনে করেন না| কারণ তাদের কাছে আল্লাহ হলেন প্রেমময়ী সদা সুন্দর| 
  4. সুফিবাদে বলা হয়েছে যে, ঈশ্বরের প্রতি ও ভক্তি গুরুরাই শিষ্যকে শেখাতে পারে|

সুফিবাদ



সমগ্র মুসলিম দুনিয়ায় 175টি যে ধর্মীয় নির্দেশ মুসলিমরা প্রতিষ্ঠা করেছিল, তা আবুল ফজলের পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়| তার মধ্যে 40টি নির্দেশ মুসলিম কিংবা সুফিরা ভারতে প্রবেশ করেন| প্রসঙ্গ যে, মুসলিম সমাজে ধর্মীয় আন্দোলনে একাধিক সম্প্রদায়ে বিভক্ত ছিল, যথা-
  1. চিশতি সম্প্রদায় 
  2. সুরাবর্দী সম্প্রদায় 
  3. কাদরি সম্প্রদায় 
  4. নকশাবাদী সম্প্রদায়
  5. ফিরদোসি সম্প্রদায়

চিশতি সম্প্রদায় 

সুফিবাদে চিশতি সম্প্রদায় বিশেষভাবে খ্যাত ছিল| খাজা মইনুদ্দিন চিশতী 1234 সালে এই সম্প্রদায়ের ভিত্তি স্থাপন করেন| মইনুদ্দিন চিশতী বহু মানুষের শ্রদ্ধা অর্জন করেছিলেন| চিশতীর সন্ন্যাসীরা নিরামিষ খেতেন এবং সবাইকে সমান নজরে দেখতেন, এর ফলে সাধারণ হিন্দু ও অন্যান্য সম্প্রদায় যথেষ্ট আকৃষ্ট হয়েছিল|

সুফিবাদ


কথিত আছে যে, মহান মুঘল(আরো পড়ুন) সম্রাট আকবর পুত্র প্রাপ্তির আশায় শেখ সেলিম দরগায় বহুবার প্রার্থনা করেন এবং এর প্রাপ্তির স্বরূপ আকবর জাহাঙ্গীরকে পুত্র সন্তান হিসাবে লাভ করেন|




সুরাবর্দী সম্প্রদায় 

সুরাবর্দী সম্প্রদায় সুফি আন্দোলনের প্রসারে যথেষ্ট সাফল্যের পরিচয় দিয়েছিলেন| এই সম্প্রদায়ের কার্যকলাপ উত্তর-পশ্চিম ভারতের পাঞ্জাব, মূলতান ও সিন্ধু অঞ্চলে সীমাবদ্ধ ছিল|

সুফিবাদ


চিশতি সম্প্রদায় ও সুরাবর্দী সম্প্রদায়ের মধ্যে পার্থক্য হল- সুরাবর্দী সম্প্রদায় রাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক রাখতো এবং জায়গীর ভোগ করত, কিন্তু চিশতি সম্প্রদায় ছিল এর সম্পূর্ণ বিপরীত|


কাদরি সম্প্রদায় 

কাদরি সম্প্রদায়ের প্রধান নেতা ছিলেন শাহলি উল্লা| তবে সৈয়দ মুকাদম, মহম্মদ জিলানি এই সম্প্রদায়কে সঙ্ঘবদ্ধ করেন|


নকশাবাদী সম্প্রদায়

নকশাবাদী সম্প্রদায়ের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন খাজা বিল্লানকম| এই সম্প্রদায় মনে করত রাষ্ট্র ও ইসলাম ধর্ম কখনোই আলাদা নয়| পরিবর্তিত সম্প্রদায়গুলি এই একই পথ অনুসরণ করতো|


ফিরদোসি সম্প্রদায়

ফিরদোসি সম্প্রদায় সম্প্রদায়ের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন শেখ বদরুদ্দিন ফিরদোসি| দিল্লিতে প্রথম এই সম্প্রদায় গড়ে উঠলেও পরে বাইরে এর প্রসার বাড়তে থাকে|


উপসংহার

ইসলামের সুফি আন্দোলনের প্রভাবে জাতীয়করণ ঘটে এবং সুফীবাদী গুরুরা তাদের কর্ম চিন্তার মাধ্যমে সাধারণ ভারতবাসীর সঙ্গে একাত্ম হতে পেরেছিলেন| সুফীবাদীদের ত্যাগ পূর্ণ জীবন মুসলিম সমাজে নৈতিকতা বোধ জাগ্রত করেন|

তাই ঐতিহাসিক রিজভী মনে করেন, সুফিবাদের অবদান একেবারে নগ্ন বা নেতিবাচক ছিল না, কিন্তু হিন্দু ভক্তি আন্দোলনে(আরো পড়ুন) হিন্দু ও মুসলমানের মধ্যে এক প্রধান যোগসুত্র রচনা করেছিল|



তথ্যসূত্র

  1. সতীশ চন্দ্র, "মধ্যযুগে ভারত"
  2. অনিরুদ্ধ রায়, "মুঘল সাম্রাজ্যের উত্থান-পতনের ইতিহাস"
  3. V D Mahajan, "History of Medieval India"

    সম্পর্কিত বিষয়

    সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ| আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো| আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন|

                  ......................................................

    নবীনতর পূর্বতন
    👉 Join Our Whatsapp Group- Click here 🙋‍♂️
    
        
      
      
        👉 Join our Facebook Group- Click here 🙋‍♂️
      
    
    
      
    
       
      
      
        👉 Like our Facebook Page- Click here 🙋‍♂️
    
    
        👉 Online Moke Test- Click here 📝📖 
    
    
        
      
               
    
     Join Telegram... Family Members
      
         
                    
                    
    
    
    
    
    
    
    

    টেলিগ্রামে যোগ দিন ... পরিবারের সদস্য

    
    
    
    
    
    
    
    
    
    

    নীচের ভিডিওটি ক্লিক করে জেনে নিন আমাদের ওয়েবসাইটটির ইতিহাস সম্পর্কিত পরিসেবাগুলি

    
    

    পরিক্ষা দেন

    ভিজিট করুন আমাদের মক টেস্ট গুলিতে এবং নিজেকে সরকারি চাকরির জন্য প্রস্তুত করুন- Click Here

    আমাদের প্রয়োজনীয় পরিসেবা ?

    Click Here

    ইমেইলের মাধ্যমে ইতিহাস সম্পর্কিত নতুন আপডেটগুলি পান(please check your Gmail box after subscribe)

    নতুন আপডেট গুলির জন্য নিজের ইমেইলের ঠিকানা লিখুন:

    Delivered by FeedBurner