বিশ্বায়নের ইতিবাচক ও নেতিবাচক দিক আলোচনা

অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে বিশ্বায়ন প্রক্রিয়ার প্রতিক্রিয়া বা পরিনাম প্রসঙ্গে ইতিবাচক বা সুফল ও নেতিবাচক বা কুফল উভয়বিধ বক্তব্যই বর্তমান| 

বিশ্বায়নের-ইতিবাচক-ও-নেতিবাচক-দিক-আলোচনা



বিশ্বায়নের নেতিবাচক বা কুফল দিক

প্রথমে বিরুদ্ধবাদীদের বিরূপ মতামত সহ উল্লেখ করা যেতে পারে-
  1. বিরুদ্ধবাদীদের অভিযোগ অনুযায়ী অর্থনৈতিক বিশ্বায়ন রাষ্ট্রের সামর্থ্য ও স্বাতন্ত্র্যকে বিপন্ন করে তুলে| রাষ্ট্রীয় আইনের অনুশাসন হীনবল হয়ে পড়ে| সংশ্লিষ্ট শক্তিশালী কর্পোরেশন সমূহের উপর জাতীয় বা গণতান্ত্রিক কোনরকম নিয়ন্ত্রণ কার্যকর হয় না| ব্যবসা-বাণিজ্যের উপর সরকারের নজরদারি থাকে না এবং জনসাধারণের কাছে কোন রকম দায়বদ্ধতা থাকে না|
  2. উদারনৈতিক রাজনীতির অর্থনীতিকে যারা বড় একটা সমর্থন করে না, তারা অর্থনৈতিক বিশ্বায়নের বিরুদ্ধে বলেন| সমালোচকরা ব্যাখ্যা করে যে, বিশ্বায়িত ব্যবসা-বাণিজ্যের কারণে কিছু কিছু দেশ বিশেষ বিশেষ দ্রব্য সামগ্রীর উৎপাদনের উপর একচেটিয়া নিয়ন্ত্রণ কায়েম করে| উদাহরণ হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভেষজ সামগ্রী বা ওষুধ উৎপাদনের রাসায়নিক পণ্য সামগ্রী, প্রাণ প্রযুক্তি প্রভৃতি| বিপরীত ক্রমে অন্য কিছু দেশের উৎপাদিত পণ্য সামগ্রী বিশ্ব অর্থনীতির ক্ষেত্রে অপেক্ষাকৃত কম গুরুত্বপূর্ণ| 

বিশ্বায়নের ইতিবাচক বা সুফল দিক

অর্থনৈতিক বিশ্বায়নের সর্মথকরা এবিষয়ে ভিন্নমত পোষণ করেন| তারা অর্থনৈতিক বিশ্বায়নের সদর্থক দিকগুলি তুলে ধরেন| তাদের বক্তব্যের বিষয়গুলি সংক্ষেপে তুলে ধরা আবশ্যক-
  1. অর্থনৈতিক বিশ্বায়ন সম্ভূত নাটকীয় অর্থনৈতিক পরিবর্তনসমূহ বিশেষভাবে সমর্থনযোগ্য| কারণ সংশ্লিষ্ট পরিবর্তন সমূহের সুবাদে সমগ্র দুনিয়ার সম্পাদিত হবে|
  2. অর্থনৈতিক বিশ্বায়নের কল্যাণের দ্রব্য সামগ্রী ও শ্রমের জন্য অধিক সংখ্যক মানুষ বিশ্ববাজারে অংশগ্রহণ করতে পারে| অর্থনৈতিক বিশ্বায়নের সদর্থক প্রবণতার সুবাদে অধিকতর সমৃদ্ধির সৃষ্টি হয়| অসংখ্য মানুষ দারিদ্র সীমানার ঊর্ধ্বে ওঠার সুযোগ পায়|
  3. অর্থনৈতিক বিশ্বায়নের আরেকটি বড় ইতিবাচক দিক আছে| দ্রব্য সামগ্রী, শ্রম ও মূলধনের জন্য উন্মুক্ত বাজারের মাধ্যমে সম্পদ অধিকতর কার্যকরভাবে পৃথিবীব্যাপী সঞ্চারিত হয়| তার ফলে বিশ্বব্যাপী মানুষের জীবন যাত্রার মান আরো উন্নত হয়|
  4. অর্থনৈতিক বিশ্বায়ন অনেকাংশে উদারনৈতিক অর্থনৈতিক ব্যবস্থার আন্তর্জাতিকীকরণ হিসাবে প্রতিপন্ন হয়| এই প্রক্রিয়ার উন্মুক্ত বাজার ব্যবস্থা, দ্রব্য সামগ্রী এবং শ্রমের জন্য প্রতিযোগিতার উপর জোর দেওয়া হয়| 
পরিশেষে বিশ্ব সমরূপ হয়ে গড়ে উঠলে সমৃদ্ধি ও সহযোগিতা সমরূপে উন্মুক্ত হবে, এরকম আশা হয়তো অমূলক নয়|


তথ্যসূত্র

  1. Manfred B. Steger, "Globalization: A Very Short Introduction".
  2. BAYLIS ET AL, "The Globalization of World Politics 2nd".

সম্পর্কিত বিষয়

  1. বিশ্বায়নের অর্থনৈতিক নেটওয়ার্ক কীভাবে আজকাল কাজ করে (আরো পড়ুন)
  2. বিশ্বায়নের সংজ্ঞা এবং তৃতীয় বিশ্বের উপর বিশ্বায়নের প্রভাব (আরো পড়ুন)
  3. বহুজাতিক সংস্থার বৈশিষ্ট্য (আরো পড়ুন)
সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ| আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো| আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন|
                     .......................................

    Previous Post Next Post

    মক টেস্ট

    ভিজিট করুন আমাদের মক টেস্ট গুলিতে- Click Here

    সাহায্যের প্রয়োজন ?

    প্রশ্ন করুন- Click Here

    Get Latest updated Via Email

    Enter your email address for last update:

    Delivered by FeedBurner