বিশ্বায়নের অর্থনৈতিক নেটওয়ার্ক কীভাবে আজকাল কাজ করে

সামগ্রিক বিচারে বিশ্বায়নের ধারণাটি মূলত অর্থনৈতিক| প্রধানত একটি অর্থনৈতিক ধারণা ও ব্যবস্থা হিসাবে বিশ্বায়নের আবির্ভাব ও বিকাশ ঘটেছে| প্রকৃত প্রস্তাবে সমাজের মূল ভিত্তিই হলো অর্থনীতি| অর্থনৈতিক বিশ্বায়নের ধারণা অনুযায়ী কোন জাতীয় অর্থনীতিকে একটি দ্বীপের মতো কোনো বিচ্ছিন্ন বিষয় হিসেবে বিবেচনা করা হয় না| 

সকল দেশের অর্থনীতিই পরস্পর সঙ্গবদ্ধ বিশ্ব অর্থনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত| অর্থনৈতিক বিশ্বায়ন হলো, স্বতন্ত্র জাতীয় অর্থনীতির সমূহের দুনিয়া ছেড়ে বিশ্ব অর্থনীতির দুনিয়ায় চলে আসা, অর্থাৎ বিশ্ব অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় উৎপাদনের আন্তজাতীয়করণ ঘটে|

অর্থনৈতিক বিশ্বায়নের একটি বড় বিষয় হলো যে, নিজেদের অর্থনীতিকে নিয়ন্ত্রণ ও পরিচালনার ক্ষেত্রে জাতীয় সরকার সমূহের হ্রাস পায়, উন্মুক্ত বাজার ব্যবস্থার পথে নিজেদের অর্থনীতির পুনঃবিন্যাসকে জাতীয় সরকারসমূহ আটকাতে পারে না| 


বিশ্বায়নের-অর্থনৈতিক-নেটওয়ার্ক-কীভাবে-আজকাল-কাজ-করে





বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ পিটার ড্রুকার তাঁর "The New Realities" শীর্ষ গ্রন্থে বিশ্বায়নের অর্থনৈতিক দিকগুলির উপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন| বিশ্বায়ন প্রক্রিয়ার প্রকাশ হিসাবে তিনি কতগুলি অর্থনৈতিক বৈশিষ্ট্য চিহ্নিত করেছেন| এই বৈশিষ্ট্যগুলিকে নিম্নলিখিত বিন্যস্ত করা যায়, যথা-
  1. বিশ্বায়নের সুবাদে আন্তর্জাতিক সংস্থাসমূহ সমগ্র পৃথিবীকে একটি মাত্র উৎপাদন ও পণ্য পরিষেবার বাজার হিসাবে গড়ে তোলার ব্যাপারে বিশ্বব্যাপী বিস্তার লাভ করেছে| 
  2. বিশ্বায়নের অর্থনীতির মূল উদ্দেশ্য হলো বাজারের সর্বাধিক বিস্তার, মুনাফার সর্বাধিকরণ নয়| 
  3. বিশ্বায়ন প্রক্রিয়ায় বিনিয়োগই বাণিজ্যে পরিণত হয়েছে, বানিজ্য-বিনিয়োগ নয়|
  4.  বিশ্বায়নের কারণে সিদ্ধান্তসমূহ গ্রহনের ক্ষমতা জাতীয় রাষ্ট্রের কাছ থেকে আঞ্চলিক জোট সমূহের কাছে হস্তান্তর হয়| 
  5. বিশ্বায়নের অর্থনীতিতে "পরিচালন ব্যবস্থা" উৎপাদনের উপাদান হিসেবে প্রাধান্য পায়| জমি, শ্রম প্রভৃতি উৎপাদনের প্রচলিত উৎপাদন সমূহ প্রাধান্য হারায়|
  6. প্রধানত অর্থের লেনদেনের মাধ্যমে বিশ্বায়নের অর্থনীতি বর্তমানে পরিচালিত হচ্ছে| অনুৎপাদক বিদেশি পুঁজি জাতি রাষ্ট্রের বাজারে প্রতিকূল প্রভাব-প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে| 
  7. বিশ্বায়নের অর্থনীতিতে সমগ্র পৃথিবী জুড়ে প্রায় স্বতঃস্ফূর্ত ঋণ, অর্থ ও বিনিয়োগের এক প্রক্রিয়া চলতে থাকে|
বিগত কয়েক দশকের সময়কালে প্রযুক্তিগত কৌশল সমূহের অভাবনীয় উন্নতি সাধিত হয়েছে| শুধু তাই নয়, আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে নাটকীয় রূপান্তর সংঘটিত হয়েছে| কমিউনিজমের পতন ঘটিয়েছে এবং উদারনীতিবাদের বিস্তার ঘটেছে, তার ফলে বিশ্বব্যাপী আন্তর্জাতিক বাণিজ্য এবং অর্থনৈতিক সম্পর্ক সমূহের অভাবনীয় বিকাশ ও বিস্তার ঘটেছে| 

সাম্প্রতিককালে প্রযুক্তিগত পরিবর্তন এবং বাজারের উদারীকরণ ঘটেছে| এই সমস্ত বহুজাতিক কর্পোরেশনগুলি বিশ্ব বাজারের উপর অধিকতর উন্মুক্ত বাজার ব্যবস্থা, পরিবহন জনিত ব্যয় হ্রাস প্রভৃতির পরিপেক্ষিতে বৃহদাকৃতির বহুজাতিক কোম্পানি সমূহ কোটি কোটি টাকা মুনাফা লাভ করে এবং বিশ্ববাজারে সম্পদসমূহ নিয়ন্ত্রণ করে| এরকম বহুজাতিক কর্পোরেশনগুলি হলো- আইবিএম(IBM), ম্যাকডোনাল্ড’স, জনসন এন্ড জনসন প্রভৃতি|

এছাড়াও বিশ্বায়ন ও বহুজাতিক সংস্থাগুলোর মধ্যে সখ্যতা নিবিড়| এই সংস্থাগুলো হলো- বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা (WTO), GATT, বহুজাতিক কর্পোরেশন(MNC) 
প্রভৃতি|



তথ্যসূত্র

  1. Manfred B. Steger, "Globalization: A Very Short Introduction".
  2. BAYLIS ET AL, "The Globalization of World Politics 2nd".

সম্পর্কিত বিষয়

  1. বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য (আরো পড়ুন)
  2. বহুজাতিক সংস্থার বৈশিষ্ট্য (আরো পড়ুন)
  3. GATT কি (আরো পড়ুন)
সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ| আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো| আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন|
                     .......................................

    Note: Email me for any questions:

    :-Click here:-.

    Your Reaction ?

    Previous
    Next Post »

    আপনার মতামত শেয়ার করুন ConversionConversion EmoticonEmoticon

    Top popular posts