ধর্মাশ্রয়ী রাষ্ট্র কাকে বলে

"Theocracy" বা "দেবতন্ত্র" শব্দটির উৎপত্তি গ্রিক শব্দ Theous থেকে, যার অর্থ হল ঈশ্বর| দেবতান্ত্রিক বা ধর্মাশ্রয়ী রাষ্ট্র তত্ত্বগতভাবে সরাসরি ঈশ্বর কর্তৃক কিংবা তার প্রতিনিধি হিসাবে রাজন্য শ্রেণি দ্বারা শাসিত হয়|

একটি ধর্মাশ্রয়ী রাষ্ট্রে সর্বশক্তিমান ঈশ্বর সার্বভৌম কর্তৃত্বের অধিকারী| এই ধরনের রাষ্ট্রে ধর্মীয় আইন চূড়ান্ত|

ধর্মাশ্রয়ী-রাষ্ট্র-কাকে-বলে



ব্যক্তির ধর্মাশ্রয়ী রাষ্ট্র অনিবার্য বৈশিষ্ট্যগুলি হল নিম্নরূপ,-
  1. সর্বশক্তিমান ঈশ্বর সার্বভৌম ক্ষমতার অধিকারী|
  2. যেখানে মানব সৃষ্টির আইনের পরিবর্তে ঈশ্বরের সৃষ্টি বিধান হিসেবে প্রযুক্ত হয়| 
  3. অদৃশ্যমান ঈশ্বরের প্রতিনিধি হিসেবে পুরোহিত শ্রেণী ব্যক্তিগত বা গোষ্ঠীগত ভাবে রাষ্ট্রীয় কার্য সম্প্রদান করেন|


তথ্যসূত্র

  1. সতীশ চন্দ্র, "মধ্যযুগে ভারত"
  2. Mohammad Habib, "Studies in Medieval Indian Polity and Culture"

    সম্পর্কিত বিষয়

    সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ| আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো| আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন|
                  ......................................................

    Previous Post Next Post

    মক টেস্ট

    ভিজিট করুন আমাদের মক টেস্ট গুলিতে- Click Here

    সাহায্যের প্রয়োজন ?

    প্রশ্ন করুন- Click Here

    ফেসবুকের মাধ্যমে আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

    our Facebook page- Click Here

    Our Facebook Group- Click Here

    ইমেইলের মাধ্যমে ইতিহাস সম্পর্কিত নতুন আপডেটগুলি পান(please check your Gmail box after subscribe)

    নতুন আপডেট গুলির জন্য নিজের ইমেইলের ঠিকানা লিখুন:

    Delivered by FeedBurner