পবিত্র চুক্তি ও চতুর্মুখী চুক্তি

ভিয়েনা চুক্তি স্বাক্ষরিত হওয়ার পর ইউরোপীয় নেতৃবর্গ ভিয়েনা যুক্তিকে স্থায়িত্ব দান, ইউরোপে শান্তি রক্ষা এবং নেপোলিয়ানের পুনরায় উত্থান রোধ- এই তিনটি প্রধান সমস্যা সমাধানের জন্য একটি স্থায়ী আন্তর্জাতিক সংগঠনের প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করেন| এর নাম দেওয়া হয় ইউরোপীয় শক্তি সমবায় বা concert of Europe| মূলত দুটি চুক্তির মাধ্যমে এই ইউরোপীয় শক্তি সমবায় গড়ে ওঠে| যথা- 1.পবিত্র চুক্তি ও 2.চতুর্মুখী চুক্তি

পবিত্র-চুক্তি-ও-চতুর্মুখী-চুক্তি
ইউরোপের মানচিত্র


পবিত্র চুক্তি (Holy Alliance)

পবিত্র চুক্তির উদ্ভাবক হলেন স্বপ্নবিলাসী, ভাবপ্রবণ ও আদর্শবাদী রুশ জার আলেকজান্ডার| তিনি মনে করতেন যে, ফরাসি বিপ্লবের ন্যায় প্রজা বিদ্রোহ ছিল খ্রিষ্টীয় ধর্ম শাস্ত্র বিরোধী| ইউরোপীয় জনগণ যদি খ্রিষ্টীয় ধর্মনীতি অনুসারে রাজ্য শাসন এবং বৈদেশিক নীতি পরিচালনা করেন, তবে ইউরোপের সকল অশান্তি দূর হবে বলে মনে করতেন|


পবিত্র চুক্তির আদর্শ 

বাইবেলের "নিউ টেস্টামেন্ট" এর খ্রিস্টীয় রাজ ও ধর্ম সম্পর্কে যেসব আদর্শের উল্লেখ আছে রুশ জার আলেকজান্ডার ইউরোপীয় রাজন্যবর্গকে সেগুলি পালনের আহ্বান জানান এবং 1815 সালের 26 শে সেপ্টেম্বর পবিত্র জোটের ঘোষণা করেন| এই চুক্তিতে বলা হয়- 
  1. ইউরোপীয় রাজন্যবর্গ পরস্পরকে খ্রিস্টীয় সমাজের অধীনে ভ্রাতা হিসেবে বিবেচনা করবেন| 
  2. নিজ নিজ প্রজাদের তারা সন্তান হিসেবে মনে করবেন| 
  3. ইউরোপীয় রাজন্যবর্গ/তারা "ন্যায়, মানবপ্রেম ও শান্তি"-কে অবলম্বন করে রাজ্য শাসন করবেন| 
  4. দেশ শাসনের সঙ্গে তারা ধর্মের অন্তর্নিহিত শর্ত গুলি পালন করবেন|
ইংল্যান্ড, পোপ ও তুরস্কের সুলতান ছাড়া ইউরোপের প্রায় সকল রাষ্ট্রই এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করে| কিন্তু এই চুক্তি বেশিদিন স্থায়ী হয়নি| আসলে এই চুক্তি বাস্তব বর্জিত ছিল, তাই সমসাময়িক রাজনৈতিকরা এর উপর বিশেষ গুরুত্ব দেয়নি| এই চুক্তির সঙ্গে জনগণের কোন সম্পর্ক ছিল না| অস্ট্রিয়ার প্রধানমন্ত্রী মেটানিক একে অর্থহীন বাগাড়ম্বর বলে বিদ্রুপ করেন| অতঃপর ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার বিরোধিতা এবং রুশ জার আলেকজান্ডারের মৃত্যুর ফলে পবিত্র চুক্তির অবসান ঘটে| 


চতুর্মুখী চুক্তি  (Quadruple alliance)

পবিত্র চুক্তি বিফলতার পর ইউরোপীয় শক্তি সমবায় গঠনের জন্য বাস্তববাদী মেটারনিক চতুর্মুখী চুক্তির খসড়া রচনা করেন| 1815 সালে 20 ই নভেম্বর ইংল্যান্ড, রাশিয়া, অস্ট্রিয়া এবং প্রাশিয়ার মধ্যে চতুর্মুখী চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়| ইউরোপীয় শক্তি সমবায় বলতে পবিত্র চুক্তি ও চতুর্মুখী চুক্তি উভয়কে বুঝালেও বাস্তবে ইউরোপীয় শক্তি সমবায় চতুর্মুখী চুক্তির দ্বারাই স্থাপিত ছিল|


চতুর্মুখী চুক্তির উদ্দেশ্য 

চতুর্মুখী চুক্তির উদ্দেশ্য ছিল- 
  1. ভিয়েনা সম্মেলনে গৃহীত রাষ্ট্রব্যবস্থাকে অক্ষুন্ন রাখা|
  2. ফরাসি সিংহাসনে কোনদিনই যাতে বোনাপার্ট পরিবারের কেউই বসতে না পারে, সেদিকে লক্ষ্য রাখা|
  3. ইউরোপে শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষা করা|
  4. ফরাসি বিপ্লবের মতো বিপর্যয়কারী ও ধ্বংসাত্মক শক্তির হাত থেকে রক্ষা করা| 
  5. নিজ নিজ স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনার জন্য মাঝে মাঝে নিজেদের মধ্যে বৈঠক করা| 
1818-1825 সালের মধ্যে চতুর্মুখী চুক্তির সর্বমোট পাঁচটি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়| 1825 সালে সেন্ট পিটার্স বার্গ সম্মেলনে পরেই ইউরোপীয় শক্তি সমবায়ের পতন ঘটে|


চতুর্মুখী চুক্তির ব্যর্থতা কারণ 

চতুর্মুখী চুক্তির ব্যর্থতার পশ্চাতে নানা কারণ ছিল|
  1. ইউরোপীয় রাষ্ট্রগুলির পারস্পরিক স্বার্থ, উদ্দেশ্যের বিভিন্নতা এবং সন্দেহ কখনোই তাদের ঐক্যবদ্ধ হতে দেয়নি| যেমন- জারের লক্ষ্য ছিল ইংল্যান্ডের অগ্রগতি রোধ করা, আবার ইংল্যান্ডের উদ্দেশ্য ছিল বলকান অঞ্চলে রাশিয়ার অগ্রগতি প্রতিরোধ করা|
  2. বিভিন্ন রাষ্ট্রের মধ্যে আদর্শগত বিরোধ ছিল| ইংল্যান্ড ছিল উদারনৈতিক গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র, কিন্তু অন্যান্য রাষ্ট্রগুলি ছিল স্বৈরাতান্ত্রিক| গণতান্ত্রিক ও উদারপন্থী ইংল্যান্ডের পক্ষে স্বৈরতান্ত্রিক রাষ্ট্রগুলিকে নিয়ে একসঙ্গে চলা সম্ভব ছিল না| 
পরিশেষে বলা যায়, তীব্র নেপোলিয়ান ভীতি ইউরোপের বিভিন্ন রাষ্ট্রকে ঐক্যবদ্ধ করেছিল| কিন্তু কালক্রমে এই ভীতি দূর হয়ে গেলে ঐক্যবদ্ধ রাষ্ট্রগুলির মধ্যে পারস্পরিক স্বার্থ সংঘাত প্রকট হয়ে ওঠে এবং চতুর্মুখী শক্তির পতন হয়|


তথ্যসূত্র

  1. অধ্যাপক গোপালকৃষ্ণ পাহাড়ি, "ইউরোপের ইতিবৃত্ত"
  2. Georges Lefebvre, "The French Revolution".
  3. Hilaire Belloc, "The French Revolution".

সম্পর্কিত বিষয়

সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ| আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো| আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন|
                     .......................................

    নবীনতর পূর্বতন
    👉 Join Our Whatsapp Group- Click here 🙋‍♂️
    
        
      
      
        👉 Join our Facebook Group- Click here 🙋‍♂️
      
    
    
      
    
       
      
      
        👉 Like our Facebook Page- Click here 🙋‍♂️
    
    
        👉 Online Moke Test- Click here 📝📖 
    
    
        
      
               
    
     Join Telegram... Family Members
      
         
                    
                    
    
    
    
    
    
    
    

    টেলিগ্রামে যোগ দিন ... পরিবারের সদস্য

    
    
    
    
    
    
    
    
    
    

    নীচের ভিডিওটি ক্লিক করে জেনে নিন আমাদের ওয়েবসাইটটির ইতিহাস সম্পর্কিত পরিসেবাগুলি

    
    

    পরিক্ষা দেন

    ভিজিট করুন আমাদের মক টেস্ট গুলিতে এবং নিজেকে সরকারি চাকরির জন্য প্রস্তুত করুন- Click Here

    আমাদের প্রয়োজনীয় পরিসেবা ?

    Click Here

    ইমেইলের মাধ্যমে ইতিহাস সম্পর্কিত নতুন আপডেটগুলি পান(please check your Gmail box after subscribe)

    নতুন আপডেট গুলির জন্য নিজের ইমেইলের ঠিকানা লিখুন:

    Delivered by FeedBurner