ওয়েল্ট পলিটিক নীতি কি

1890 সালে ক্ষমতাচ্যুত করার সাথে সাথে জার্মানির সম্রাট কাইজার দ্বিতীয় উইলিয়াম বিশ্ব রাজনীতিতে এক সক্রিয় ভূমিকায় অবতীর্ণ হন| তিনি বিসমার্কের অনুসৃত সাবধানী ও বাস্তবসম্মত পররাষ্ট্র নীতি পরিত্যাগ করেন| বিসমার্ক জার্মানিকে পরিতৃপ্ত দেশ বলে ঘোষণা করে জার্মানির আতঙ্ক থেকে বিশ্ব রাজনীতিকে মুক্ত করেছিলেন|

ওয়েল্ট-পলিটিক-নীতি-কি
জার্মানির মানচিত্র


কিন্তু কাইজার দ্বিতীয় উইলিয়াম জার্মানিকে আদৌ পরিতৃপ্ত দেশ বলে মনে করতেন না| তাই তিনি সমগ্র পৃথিবীতে জার্মানির প্রাধান্য স্থাপন করতে সচেষ্ট হন| তার পররাষ্ট্র নীতির মূল বক্তব্য ছিল, শক্তিরূপে জার্মানিকে প্রতিষ্ঠা করা| এইজন্য তার অনুসৃত পররাষ্ট্র নীতিকে "বিশ্বনীতি" বা "ওয়েল্ট পলিটিক" বলা হয়| 

জার্মানীকে বিশ্ব রাষ্ট্র রূপে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য কাইজার নৌ-শক্তির উন্নতি সাধন ও উপনিবেশ বিস্তারে সচেষ্ট হন| তিনি অস্ট্রিয়া, পোল্যান্ড, লুক্সেমবার্গ প্রভৃতি দেশ নিয়ে বৃহত্তর জার্মান রাষ্ট্র গঠন এবং ইউরোপের বাইরে নতুন নতুন উপনিবেশ স্থাপন করে বাজার তৈরির পরিকল্পনা করেন| 

ওয়েল্ট পলিটিক এর অন্যতম প্রচারক ম্যাক্স ওয়েবারের মতে, "জার্মান ইতিহাসের অনিবার্য পরিণতি হলো জার্মানির বিশ্ব আধিপত্য| যেভাবে ব্রান্ডেনবার্গ রাজ্য প্রাশিয়াতে এবং প্রাশিয়া জার্মানিতে পরিণত হয়, সেভাবে জার্মানি একটি বিশ্ব শক্তিতে পরিণত হবে"|


তথ্যসূত্র

  1. Peter Watson, "The German Genius".
  2. Ghosh Peu, "International Relations".

সম্পর্কিত বিষয়

  1. দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরবর্তী সময় উপনিবেশবাদের পতন তথা এর গুরুত্ব (আরো পড়ুন)
  2. দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে জার্মানির বিভাজন তথা বিশ্ব রাজনীতিতে তার প্রভাব  (আরো পড়ুন)
  3. ইতালিতে ফ্যাসিবাদের উত্থানের কারণ  (আরো পড়ুন)
সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ| আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো| আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন|
                     .......................................

    Need Help..?

    Ask Questions - (click here)

    Mock Test

    Visit our Mock Test Episodes - (click here)

    Share this post with your friends

    Like and support our Facebook page
    Previous
    Next Post »