ওয়াশিংটন নৌ চুক্তি

1921 সালে প্রধানত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উদ্যোগে দূর প্রাচ্যের ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় সমস্যাগুলি সমাধানের জন্য ওয়াশিংটনে একটা সম্মেলনের আহ্বান করা হয়েছিল| 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, ফ্রান্স, ইতালি, পর্তুগাল, বেলজিয়াম, জাপান, হল্যান্ড, চীন- এই নয়টি দেশ এই সম্মেলনে যোগদান করেছিল| এই সম্মেলনে মোট সাতটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল| এই চুক্তি গুলির মধ্যে অন্যতম উল্লেখযোগ্য ছিল দূরপ্রাচ্যের নৌ-শক্তি ও নৌ প্রতিযোগিতা হ্রাস করার বিষয়ে স্বাক্ষরিত "পঞ্চশক্তি চুক্তি" বা "ওয়াশিংটন নৌ চুক্তি"|

ওয়াশিংটন-নৌ-চুক্তি
যুদ্ধজাহাজ


1922 সালের 6 ই ফেব্রুয়ারি আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, ফ্রান্স, জাপান ও ইতালির মধ্যে দূরপ্রাচ্যের নৌ-শক্তি প্রশমন সংক্রান্ত এই "ওয়াশিংটন নৌ চুক্তি" স্বাক্ষরিত হয়েছিল| এই চুক্তি কোন দেশ কতটা বড় যুদ্ধ জাহাজ রাখতে পারবে, তা নির্ধারিত করে দেয়| 

বড় যুদ্ধজাহাজ বলতে বোঝানো হয়েছিল 10,000 টনের বেশি ওজনের জাহাজ অথবা 4 ইঞ্চি থেকে বড় ব্যাসের বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজকে| মার্কিন বিদেশ সচিব চার্লস ইভানস হিউগেসের প্রস্তাব অনুযায়ী সিদ্ধান্ত হয় যে, পাঁচটি স্বাক্ষরকারী দেশ- আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, ফ্রান্স, জাপান ও ইতালির নৌবহরের আনুপাতিক হার হবে যথাক্রমে 5 : 5 :3 : 1.75 : 1.75 

কোন যুদ্ধে জাহাজের ওজন 35,000 টন অতিক্রম করবে না এবং এবং কোন জাহাজেই 16 ইঞ্চির থেকে বড় ব্যাসের কামান থাকবে না| জাপান প্রথমে আমেরিকা ও ব্রিটেনের তুলনায় অপেক্ষাকৃত ছোট নৌ-বহর রাখতে ইতস্তত করে, কিন্তু পরে তা মেনে নেয়| এই ওয়াশিংটন নৌ চুক্তির ফলে বিভিন্ন দেশের নৌবহর বৃদ্ধির প্রতিযোগিতার পথ বন্ধ হয় এবং দূরপ্রাচ্যে উত্তেজনার সামরিক প্রশমন ঘটে|


              ...........................................

Note:- Please share your comment for this post :

:

--Click here:--

Mock Test

Visit our Mock Test Episodes - (click here)

Share this post with your friends

please like the FB page and support us

Previous
Next Post »