সিন্ধু সভ্যতার সিলমোহর সম্পর্কে আলোচনা

সুপ্রাচীন সিন্ধু সভ্যতার নিদর্শন হিসেবে নানা ধরনের প্রত্নতান্ত্রিক উপাদান গুলির মধ্যে সীলমোহর গুলি বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। খনন কার্যের ফলে প্রাপ্য প্রচুর সিলমোহর থেকে অনুমান করা যায় যে, হরপ্পা সভ্যতায় সিলমোহরের ব্যাপক প্রচলন ছিল। এই সিলমোহরগুলি বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য লক্ষ্য করা যায়। ঐতিহাসিক স্মিত মন্তব্য করেছেন যে- সিন্ধু সভ্যতার প্রত্নতান্ত্রিক নিদর্শন গুলির মধ্যে সিলমোহর গুলি বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।

সিন্ধু সভ্যতার সিলমোহর সম্পর্কে আলোচনা
সীল গুলি, (source of Wikipedia)


👉 গঠন

সিন্ধু সিলমোহরগুলি অধিকাংশই ছিল পোড়ামাটি তৈরি। দীর্ঘ ও টেকসই করার জন্য এগুলি আগুনে পোড়ানো হতো। এগুলি ছাড়া স্টিয়াটাইট জাতীয় পাথর, হাতির দাঁত প্রভৃতিও সিল তৈরির কাজে ব্যবহার করা হতো। সিলগুলি আকার ছিল মূলত চার কণার বৈশিষ্ট্য। ঐতিহাসিক জন মার্শাল মন্তব্য করেছেন- "সিন্ধু আদিবাসীদের সিলমোহরগুলি গঠন শৈল নিখুঁত ও নান্দনিক"।


👉 বিষয়বস্তু

সিন্ধু সভ্যতার সিলে স্বস্তিকা চিহ্ন, বিভিন্ন দেবদেবীর মূর্তি, বিভিন্ন পশুপাখির চিত্র পাওয়া গেছে। এই সব থেকে সিন্দু অধিবাসীদের ধর্মীয় চেতনার পরিচয় পাওয়া যায়। এ ছাড়া সিল গুলিতে গন্ডার, হাতি, বাঘ, হরিণ প্রভূতি পশুর মূর্তি খোদাই করা হতো। পশুপতি শিবের মূর্তি বিশিষ্ট সিন্ধু সিলটি বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ‌। কয়েকটি সিলে জলযানের চিত্র থেকে সিন্ধু বাসীদের সামুদ্রিক বাণিজ্যে অংশগ্রহণের প্রমাণ মিলে।


👉 ব্যবসায়িক চিহ্ন

সিন্ধু সভ্যতার সিলমোহরে ব্যবসায়িক চিহ্ন লক্ষ করা যায়। ঐতিহাসিক ড. ব্যাসাম মন্তব্য করেছেন- "সিন্ধু সভ্যতার বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের নির্দিষ্ট ছাপের সীলমোহর থাকতো। বিভিন্ন দ্রব্য সামগ্রী উপর ছাপ দিতে এই সিলমোহর গুলি ব্যবহার করা হতো। সিলমোহর গুলি বাণিজ্যিক লেনদেনের সঙ্গে যুক্ত ছিল। ড. রনবীর চক্রবর্তী মন্তব্য করেছেন- "বৈদেশিক ও অভ্যন্তরীণ লেনদেনের জন্য এই সিলমোহর গুলি ব্যবহার করা হতো"।


👉 হরফ ও সংখ্যা 

সিন্ধু সভ্যতার সিলমোহর সম্পর্কে আলোচনা
সীলা লিপি (source of Wikipedia)

সিন্ধু সভ্যতার সিল গুলিতে বিভিন্ন হরফ ও সংখ্যা খদিত থাকতো। এই লিপি গুলি ছিল মূলত চিত্রলিপি। এ থেকে সিন্ধু বাসীদের লেখা ও গণনার কাজে দক্ষতা প্রমাণ মিলে‌। তারা সম্ভবত প্রথমে ডান দিক থেকে বাম দিকে এবং পরে লাইনে বাম থেকে ডান দিকে লিখতো। কিন্তু সিন্ধু লিপির পাঠোদ্ধার করা আজও সম্ভব হয়নি।


👉 মন্তব্য

আলোচনা শেষে বলা যায় যে, সিন্ধু সভ্যতার সিলমোহর গুলি প্রাচীন ইতিহাস রচনার এক গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ।


📖 তথ্যসূত্র

  1. সুনীল চট্টোপাধ্যায় "প্রাচীন ভারতের ইতিহাস" (প্রথম খন্ড)।
  2. Poonam Dalal Dahiya, "Ancient and Medieval India".
  3. Upinder Singh, "A History of Ancient and Early Medieval India: From the Stone Age to the 12th Century".

সম্পর্কিত বিষয়

  1. ঋক বৈদিক যুগ এবং পরবর্তী বৈদিক যুগের ধর্মীয় ভাবনা (আরো পড়ুন)।
  2. বৈদিক এবং ঋক বৈদিক যুগে প্রশাসনিক ব্যবস্থা (আরো পড়ুন)‌।
  3. প্রাচীন ভারতীয় সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য  (আরো পড়ুন)।
👉সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো। আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন🙏🙇‍♂️।
                     .......................................

    নবীনতর পূর্বতন
    👉 আমাদের অফিসিয়াল হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ- ক্লিক করুন 🙋‍♂️
    
        
      
      
        👉 আমাদের ফেসবুক গ্রুপ- ক্লিক করুন 🙋‍♂️
      
    
    
      
    
       
      
      
        👉 আমাদের ফেসবুক পেজ -ক্লিক করুন 🙋‍♂️
    
    
        👉 অনলাইনে মক টেস্ট দিন- ক্লিক করুন 📝📖 
    
    
    👉 আজকের দিনের ইতিহাস - ক্লিক করুন 🌐 🙋‍♂️
    
    
    
    
    👉 ইতিহাসের PDF বই 📖- ক্লিক করুন 🌐 🙋‍♂️
    
    
        
      
               
    

    টেলিগ্রামে যোগ দিন ... পরিবারের সদস্য

    
    
    
         
                    
                    
    
    
    

    টেলিগ্রামে যোগ দিন ... পরিবারের সদস্য


     


     

    
    

    👉নীচের ভিডিওটি ক্লিক করে জেনে নিন আমাদের ওয়েবসাইটটির ইতিহাস সম্পর্কিত পরিসেবাগুলি 📽️

    
    
    

    👉 জেনে আপনি আমাদের প্রয়োজনীয় পরিসেবা 📖

    👉ক্লিক করুন 🌐