রেনেসাঁ ও মানবতাবাদ

রেনেসাঁ বা নবজাগরণের যুগে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য এবং অন্যতম অবদান হলো মানবতাবাদী চেতনার বিকাশ| মানবতাবাদ একটি সাংস্কৃতিক ও বৌদ্ধিক আন্দোলন, যার মূল কেন্দ্র ছিল মানুষ এবং ভিত্তি ছিল ধর্মনিরপেক্ষতা| ঐশ্বরিক শক্তির প্রতি প্রশ্নহীন আস্থা অথবা অলৌকিক শক্তির প্রতি বিশ্বাস এখানে স্থান পায়নি| 

তৎকালীন সাহিত্য, শিল্প, বিজ্ঞান, দর্শন ইত্যাদি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে মানবতাবাদের উল্লেখযোগ্য এবং ব্যাপক প্রভাব লক্ষ্য করা যায়| এখানে আমাদের মনে রাখা দরকার যে- মানবতাবাদীরা ধর্ম বিরোধী ছিল না, তবে ধর্মীয় অনুশাসন সম্পর্কে সংশয় ছিল যথেষ্ট| তাই বিখ্যাত সংস্কারক ইরাসমাস লিখেছেন, "মানবতাবাদের স্পর্শ যেন গভীর ঘুম ভেঙ্গে নতুন চেতনায় উদ্ভুদ্ধ হয়ে উঠেছিল"|

রেনেসাঁ_মানবতাবাদ

     ইতালির মানচিত্র



মানবতাবাদের কেন্দ্র ইতালি

মানবতাবাদের প্রধান এবং প্রাথমিক কেন্দ্র ছিল ইতালি| প্রধানত ইতালি থেকে এর প্রসার লাভ করেছিল| কনস্টান্টিনোপলের পতনের পর কিছু সংখ্যক পন্ডিত ইতালিতে আশ্রয় গ্রহণ করে এবং তার ফলে সেখানে প্রাচীন গ্রিক ও রোমান সভ্যতা সমৃদ্ধি হয়| তার সাথে সাথে মুক্ত ও স্বাধীন চিন্তাধারার বিকাশ ঘটে| যুক্তিবাদী মানুষ ধর্মের অন্তর্নিহিত বিষয় বুঝতে পারে এবং তার ফলে মানুষ আত্ম নিগ্রহের পরিবর্তে আত্মমর্যাদার গুরুত্ব বুঝতে সক্ষম হয়|

ফ্লোরেন্স, উত্তর ইতালি বিভিন্ন শহর হয়ে এই মানবতাবাদচর্চা ব্যাপক প্রসার লাভ করেছিল| তবে ইতালির মানবতাবাদীরা ধর্ম বিরোধী ছিল না, বিরোধী ছিল ধর্মীয় অনুশাসন সম্পর্কে| এই ক্ষেত্রে উদাহরণ হিসেবে বলা যায় যে, পেত্রার্ক(Francesco petrarca)  নিজে ধর্মীয় বিশ্বাসের সম্পর্কে সংশয় প্রকাশ করলেও কখনো তিনি চার্চের বিরোধিতা করেননি|


মানবতাবাদের বৈশিষ্ট্য

মানবতাবাদের অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো, মানুষকে অসহায় জীব হিসেবে না দেখে সৃজনশীল শক্তি রূপে প্রতিষ্ঠা করার প্রয়াস শুরু হয়| "মানুষ নিয়তির দ্বারা পরিচালিত"- এই ধারণা মানবতাবাদ কখনো স্বীকার করে না| একজন মানবতাবাদী সব সময় চেষ্টা করে ধর্মের বাইরে মানুষের অস্তিত্ব তুলে ধরা এবং এই প্রয়াসের মূল ভিত্তি হলো ধর্মনিরপেক্ষতা|


উপসংহার 

পরিশেষে এই কথা আমরা বলতে পারি যে- রেনেসাঁ বা নবজাগরণের যুগে সাহিত্য, শিল্প, রাজনৈতিক, সামাজিক, বিজ্ঞান, প্রভৃতি ক্ষেত্রে মানবতাবাদী চেতনার এক উল্লেখযোগ্যপ্রভাব উল্লেখযোগ্য প্রভাব পড়েছিল|


তথ্যসূত্র

  1. অধ্যাপক গোপালকৃষ্ণ পাহাড়ি, "ইউরোপের ইতিবৃত্ত"
  2. Jacob Burckhardt, "The Civilization of the Renaissance in Italy".
  3. Roberta J. M., "The Biography of the Object in Late Medieval and Renaissance Italy".

সম্পর্কিত বিষয়

সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ| আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো| আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন|
                     .......................................

    Note:- Please share your comment for this post :

    :

    --Click here:--

    .

    Share this post with your friends

    please like the FB page and support us

    Previous
    Next Post »

    Top popular posts