জোরজবস্তি মূলক বাণিজ্যিকীকরণ কাকে বলে

ব্রিটিশ আমলে রাজস্ব ও খাজনার অতিরিক্ত চাহিদার ফলে কৃষকদেরকে বাজারমুখী করে তুলে| রাজস্ব ও খাজনার চাহিদা মেটাতে হতো নগদ টাকা দিয়ে| 

প্রথমে কৃষকের কাছে নগদ টাকার ঘাটতি ছিল, তাই পণ্যের বাণিজ্যের প্রয়োজন দেখা দিয়েছিল| তাছাড়া বীজ, কৃষি সরঞ্জাম, গবাদি পশু ইত্যাদির ক্রয় জন্য কৃষকদেরকে প্রায় ঋণ নিতে হতো| 

জোরজবস্তি-মূলক-বাণিজ্যিকীকরণ-কাকে-বলে
কৃষক
জোরজবস্তি-মূলক-বাণিজ্যিকীকরণ-কাকে-বলে
কৃষি জমি


উপমহাদেশে বিভিন্ন স্থানে শস্য বাণিজ্যের সঙ্গে ঋণের ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ গড়ে উঠেছিল| কারণ অনেক ক্ষেত্রেই ঋণ আসতো পণ্যের মাধ্যমে| 

সাহিদ আমিন দেখিয়েছেন, বাধ্যতামূলকভাবে নগদ টাকায় রাজস্ব বা খাজনা দেওয়ার জন্য কৃষকরা প্রায় ঋণের জালে জড়িয়ে পড়তো এবং খাজনা মেটানো ও ঋণ পরিশোধের তাগিদে কৃষকদেরকে জোরজবস্তিভাবে খাদ্যশস্যের পরিবর্তে অর্থকারী শস্যের দিকে নিয়ে যায়| এই প্রক্রিয়াটিকে অর্থনীতিবিদরা "Forced commercialization" বা "জোরজবস্তি মূলক বাণিজ্যিকীকরণ" বলেছেন|


তথ্যসূত্র

  1. সুমিত সরকার, "আধুনিক ভারত"
  2. শেখর বন্দ্যোপাধ্যায়, "পলাশি থেকে পার্টিশন"
  3. Sonali Bansal, "Modern Indian History".

সম্পর্কিত বিষয়

সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ| আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো| আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন|
              ......................................................

Previous Post Next Post

মক টেস্ট

ভিজিট করুন আমাদের মক টেস্ট গুলিতে- Click Here

সাহায্যের প্রয়োজন ?

প্রশ্ন করুন- Click Here

ফেসবুকের মাধ্যমে আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন

our Facebook page- Click Here

Our Facebook Group- Click Here

ইমেইলের মাধ্যমে ইতিহাস সম্পর্কিত নতুন আপডেটগুলি পান(please check your Gmail box after subscribe)

নতুন আপডেট গুলির জন্য নিজের ইমেইলের ঠিকানা লিখুন:

Delivered by FeedBurner