নেপোলিয়ন কে কেন ফরাসি বিপ্লবের শিশু বলা হয়

নেপোলিয়ন বোনাপার্টের জীবনী উত্থান ও পতনের একটি চিত্তাকর্ষক উপন্যাসের মতো| নেপোলিয়ন ছিলেন ফরাসি বিপ্লবের সৈনিক, বিপ্লবী বাহিনীর অধিনায়ক এবং আল্পস পেরিয়ে বিপ্লবকে ইউরোপে নিয়ে গিয়েছিলেন| 

নেপোলিয়ান কনসাল রূপে প্রভুত্ব সংস্কার সাধন করে বিপ্লবের উত্তরাধিকারকে স্থায়ীভাবে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন| আবার তিনি প্রজাতন্ত্রকে ধ্বংস করে ফ্রান্সকে বংশগত সাম্রাজ্যে পরিণত করতে চেয়েছিলেন| 

সামরিক বিজয়ের মধ্যে ইউরোপের রাষ্ট্র ব্যবস্থাকে সম্পূর্ণ ধ্বংস করে নিজের ভাই ও অনুচরদের শাসক রূপে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন| নেপোলিয়ানের কর্ম ও জীবন সৃজনশীল মানুষের মনকে স্পর্শ করেছিল| বস্তুত নেপোলিয়ান নিজেও এক সময় নিজেকে বিপ্লবের সন্তান বা শিশু বলে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন, আবার অন্য একটি প্রসঙ্গে তিনি নিজেকে বিপ্লবের ধ্বংসকারী বলে উল্লেখ করেছেন|


নেপোলিয়নকে-কেন-ফরাসি-বিপ্লবের-শিশু-বলা-হয়
নেপোলিয়ন বোনাপার্ট




ফ্রেডরিক ম্যাসন মনে করেন, নেপোলিয়ন ছিলেন বিপ্লবের সন্তান ও বিপ্লবের প্রতীক| ঐতিহাসিক লেকবেসার মনে করেন, পূর্বতন বিশেষ অধিকার ভোগী সমাজ ব্যবস্থার অবসান ঘটিয়ে নতুন বুর্জোয়া সমাজ গঠনের দ্বারা তিনি বিপ্লবের মুক্ত সমাজ ব্যবস্থায় রূপান্তরিত করেছিলেন, সাম্রাজ্য গঠন ও সংস্কারের মাধ্যমে তিনি জাতীয়তাবাদ জাগ্রত করে বিপ্লবের আদর্শকে লালন করেছিলেন| 

আবার ঐতিহাসিক টেনি মনে করেন, নেপোলিয়ানের কাজের সঙ্গে বিপ্লবী আদর্শের যোগ থাকলেও তা ছিল নিছক দুর্ঘটনা|


নেপোলিয়ন সম্পর্কে ঐতিহাসিকদের মধ্যে তীব্র মতপার্থক্য জন্য তার যথাযথ ভাবমূর্তি তুলে ধরা সত্যিই কঠিন কাজ| তবে নিরপেক্ষ বিচারের মনে হয়, "বিপ্লবের সন্তান", আর "বিপ্লবের ধ্বংস কর্তা"- নেপোলিয়ন সম্পর্কে এই দুটি উক্তি আপাত দৃষ্টিতে সত্য বলে মনে হয়| ফরাসি বিপ্লবের অন্যতম আদর্শ ছিল সাম্য, মৈত্রী ও স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠা|

নেপোলিয়নকে-কেন-ফরাসি-বিপ্লবের-শিশু-বলা-হয়
নেপোলিয়নের সাম্রাজ্য




নেপোলিয়ন স্বাধীনতা ছাড়া অন্য দুটি আদর্শ রূপায়নের যথেষ্ট আন্তরিক ছিলেন| তিনি নিজেই ছিলেন সাম্যের প্রতিভূ| বংশ গৌরব বা উত্তরাধিকার সূত্রে প্রাপ্ত ক্ষমতা ছাড়া তিনি ফরাসিদের সম্রাট হতে পেরেছিলেন এবং তা যথেষ্ট মর্যাদার সাথেই বিপ্লব ও বেশকিছু নতুন ব্যবস্থাকে তিনি স্থায়িত্ব প্রদান করেছিলেন|


বিপ্লবী যুগের ভূমি ব্যবস্থায় নেপোলিয়ন অপরিবর্তিত রাখলেন| সংস্কার কাজের মধ্য দিয়ে নাগরিকদের সম-অধিকার, আইনের দৃষ্টিতে সমতা, ধর্মীয় সহনশীলতা ইত্যাদি বিপ্লবের ইতিবাচক সুফলকে নেপোলিয়ন স্থায়ী করতে চেয়েছিলে| নেপোলিয়ন আইন বিবিধ প্রণয়ন করে মানব অধিকারের রক্ষক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন- যা ছিল বিপ্লবের মূল লক্ষ্য| ফ্রান্সের বাইরে বিজিত অঞ্চলে নেপোলিয়ন আদর্শ ভিত্তিক সংস্কার প্রবর্তন করেছিলেন|

এই কথা সত্য যে, বোনাপার্ট এর মধ্যে সৃষ্টি হয়েছিল বিপ্লবের আদর্শ| কিন্তু সাথে সাথে এই কথাও সত্যি যে, তিনি বিপ্লবের আদর্শকে জলাঞ্জলি দিয়েছিলেন| তার সংস্কারের একমাত্র উদ্দেশ্য ছিল নব বুর্জোয়া শ্রেণীর স্বার্থ রক্ষা করা| তাই তিনি সামন্ততন্ত্রকে উচ্ছেদ সাধন করে সাম্যের প্রতি শ্রদ্ধা দেখেছিলেন| এক্ষেত্রে তিনি বিপ্লবের সন্তান হিসেবে চিহ্নিত হতে চেয়েছিল|

আবার তিনি স্বৈরাতান্ত্রিক শাসনে বিশ্বাসী ছিলেন, সেক্ষেত্রে তিনি বিপ্লবের আবেগ, মূলমন্ত্র ও স্বাধীনতাকে পদদলিত করতে এতটুকু কুণ্ঠিত হননি| এক্ষেত্রে তিনি বিপ্লবের ধ্বংসকারী কর্তৃত্ব পালন করেছিলেন| বুর্জোয়া শ্রেণীর স্বার্থ রক্ষার তাগিদে সাম্যের যতটুকু প্রয়োজন ছিল, সেটুকু ক্ষেত্রে কেবল তিনি নিজেকে বিপ্লবের সন্তান বা শিশু বলে প্রমাণ করতে পেরেছিলেন|


তথ্যসূত্র

  1. অধ্যাপক গোপালকৃষ্ণ পাহাড়ি, "ইউরোপের ইতিবৃত্ত"
  2. Adam Zamoyski, "Rites of Peace: The Fall of Napoleon and the Congress of Vienna".
  3. George Holmes, "The Oxford History of Medieval Europe".

সম্পর্কিত বিষয়

সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ| আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো| আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন|
                     .......................................

    Note:- Please share your comment for this post :

    :

    --Click here:--

    .

    Share this post with your friends

    please like the FB page and support us

    Previous
    Next Post »

    Top popular posts