ফরাসি বিপ্লবের কারণ

ফরাসি বিপ্লব ফ্রান্সের তথা ইউরোপের ইতিহাসে এক যুগান্তকারী ঘটনা| এই মহাবিপ্লবের ভিতর দিয়ে অসাম্য ও অন্যায়ের উপর প্রতিষ্ঠিত প্রচলিত রাষ্ট্র ও সমাজ ব্যবস্থার বিরুদ্ধে শোষিত, নিপীড়িত জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত প্রতিবাদ আত্মপ্রকাশ হয়েছিল| এই বিপ্লব কোন আকস্মিক ঘটনা কিংবা কোন একটি নির্দিষ্ট কারণেও সংঘটিত হয়নি| 

এই বিপ্লব সৃষ্টিতে আর্থ-সামাজিক কারণগুলির পাশাপাশি বুঁরবো রাজবংশের দায়িত্বও কম ছিল না| ঐতিহাসিক মাঁদেলা তাই যথাযথই বলেছেন, "It was the French Monarchy which made the Revolution".

ফরাসি-বিপ্লবের-কারণ
চতুর্দশ লুই


ফরাসি বিপ্লবের রাজনৈতিক কারণ

ফরাসি রাজতন্ত্র ছিল নিরঙ্কুশ স্বৈরাচারী ও কেন্দ্রীভূত| প্রতিনিধিমূলক সংস্থা বলে কিছুই ছিল না| "স্টেট জেনারেল" নামক এক প্রতিনিধি সভা ছিল বটে, কিন্তু তার দীর্ঘকাল ধরে আহবান করা হয়নি| এরফলে রাজার ক্ষমতা সর্বাত্মক হয়ে ওঠে| 

অষ্টাদশ শতকে ফরাসি রাজতন্ত্রের স্বেচ্ছাচারিতা আরো প্রবল হয়ে উঠে| ফরাসি সম্রাটেরা নিজেদের ঈশ্বরের প্রতিনিধি বলে মনে করতে থাকেন| নিজের কাজের জন্য বুঁরবো রাজারা কোনো পার্থিব শক্তি বা সংস্থার কাছে জবাবদিহি ছিলেন না| তারা ছিলেন একাধারে শাসক, বিচারক ও আইন প্রণেতা, এক কথায় প্রজাদের ভাগ্য নিয়ন্ত্রক|

চতুর্দশ লুই এর আমলে রাজতন্ত্রের স্বেচ্ছাচারিতা চরমে পৌঁছায় এবং তার প্রকৃত ইঙ্গিত পাওয়া যায় তার বক্তব্যে, যেখানে তিনি বলেছিলেন- "I am state". ফরাসি সম্রাট ষোড়শ লুই শাসক হিসাবে অপদার্থ হলেও তার দম্ভ ছিল অপরিসীম| তিনি বলতেন, "আমি যা করি, তাই আইন"| অষ্টাদশ শতকে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে যখন জ্ঞানদীপ্ত স্বৈরাচারী শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়, তখন ফ্রান্সে বুঁরবো রাজবংশের স্বৈরাচারী শাসন চলতে থাকে|

জনৈক ঐতিহাসিক মন্তব্য করেছেন যে, এই সময় সাধারণ মানুষের সুবিধা-অসুবিধের কথা বুঁরবো রাজার কানে পৌছাত না এবং তারা প্রজাদের অবস্থা সম্পর্কে সচেতন ছিলেন না| ফলে ফরাসি রাজতন্ত্র ক্রমে সাধারণ মানুষ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে|

ফরাসি বিপ্লবের অর্থনৈতিক কারণ

রাজতন্ত্রের অপদার্থতা ছাড়াও ভার্সাই বা ভার্সাইলস রাজপ্রাসাদের বিলাস-ব্যসন ও রাজপরিবারে অমিত ব্যায়িতা ও উশৃংখলতা ফরাসি জনগণকে রাজতন্ত্রের প্রতি ক্রমেই বিদ্বেষ গড়ে তুলেছিল| ভার্সাই রাজপ্রাসাদ ছিল বিলাস-ব্যায়িতা ও ঐশ্বর্যের ইন্দ্রপুরী| 1800 কর্মচারী রাজপরিবারের সেবায় নিযুক্ত ছিল| সভাসদগণের মধ্যে কোটি কোটি মুদ্রা পুরস্কার হিসেবে বিতরণ করা হতো|

ফরাসি-বিপ্লবের-কারণ
ভার্সাই বা ভার্সাইলস রাজপ্রাসাদ
ফরাসি-বিপ্লবের-কারণ
ভার্সাই বা ভার্সাইলস রাজপ্রাসাদ


একটি পরিসংখ্যান থেকে জানা যায় যে, 1789 সালে ভার্সাই রাজপ্রাসাদে বিলাস-ব্যসনে প্রায় 2 কোটি মুদ্রা ব্যায়িত হয়েছিল| রাজপ্রসাদ সদা সর্বদা আনন্দ-উৎসবে মুখর হয়ে থাকত| রাজা, রানী, রাজকুমার ও রাজকুমারীদের প্রমোদ-ভ্রমণের জন্য রাজদরবারে প্রায় দু'হাজার ঘোড়া সর্বদা প্রস্তুত থাকত| এক পরিসংখ্যান থেকে জানা যায় যে, দাম্ভিক ও বিলাসিনী রানী মেরী আঁতোয়াতে এর নিজস্ব সহচরীর সংখ্যা ছিল 500 জন| স্বাভাবিকভাবেই রাজদরবারের এই উশৃংখলতা ও অমিত ব্যায়িতা ফরাসি জনগণের মধ্যে এক দারুণ ক্ষোভের সঞ্চার করেছিল|


ফরাসি বিপ্লবের সামাজিক কারণ

রাজ শক্তির এই দুর্বলতার সুযোগ নেয় অভিজাতরা| রাজসভা স্বার্থান্বেষী অভিজাতদের ষড়যন্ত্রের লীলাভূমিতে পরিণত হয়| অভিজাতরা স্ব স্ব প্রধান হয়ে নিজ নিজ স্বার্থে শাসন-কার্য পরিচালনা করতে থাকেন| শাসনব্যবস্থা সম্পূর্ণভাবে স্বৈরাচারী ও দুর্নীতি গ্রস্থ হয়ে পড়ে এবং তা "ইনটেনডেন্ট" নামক কর্মচারীর হাতে চলে যায়| তার নিজ স্বার্থ সিদ্ধির জন্য চরম অত্যাচারী হয়ে উঠে| জনসাধারণ তাদের "অর্থলোলুপ নেকড়ে" উপাধিতে ভূষিত করে|

"লেতর দ্য ক্যাশে" নামক গ্রেফতারি পরোয়ানার সাহায্যে রাজপুরুষেরা যেকোন সাধারণ নাগরিককে বিনা বিচারে কারারুদ্ধ করে রাখতে পারতো| বাস্তিল দুর্গ এইসব নিরপরাধ বন্দিতে পূর্ণ হয়ে যায়| বিচার ব্যবস্থা ছিল প্রহসনের নামান্তর| বিচারকরা তাদের পদ গুলি সরকারের কাছ থেকে কিনে নিতেন| সরকার তাদের বেতন দিতেন না| জরিমানা থেকে প্রাপ্ত অর্থ সবটাই তারা পেতেন| এজন্য অর্থদণ্ডের পরিণাম ছিল অত্যাধিক| আইনের চোখে সকলের সমান অধিকার স্বীকৃত ছিল না| বংশানুক্রমিকভাবে নিযুক্ত দুর্নীতিগ্রস্ত বিচারকরা ন্যায়বিচার অপেক্ষা নিজ স্বার্থ সিদ্ধিতে ব্যস্ত থাকতেন|


ভ্রান্ত  বিদেশনীতি

বুঁরবো রাজাদের বিদেশনীতি ছিল ভ্রান্ত ও জনস্বার্থ বিরোধী| অস্ট্রিয়ার উত্তরাধিকার যুদ্ধ(1740-48) এবং সপ্তবর্ষব্যাপী যুদ্ধে(1756-63) পরাজিত হওয়ায় ফ্রান্সের মর্যাদা ভূলুণ্ঠিত হয়| আমেরিকা ও ভারতবর্ষে ফরাসি উপনিবেশ স্থাপনের সম্ভাবনা বিনষ্ট হয়| ষোড়শ লুই আমেরিকার স্বাধীনতা যুদ্ধে যোগ দিতে হৃত গৌরব পুনরুদ্ধারের চেষ্টা করেন, কিন্তু এতে ফ্রান্সের প্রচুর অর্থ ব্যয় হয়| অর্থ সংকট মেটানোর চেষ্টা নিষ্ফল হলে তিনি "স্টেট জেনারেল" আহবান করতে বাধ্য হন, এরফলে সঙ্গে সঙ্গেই বিপ্লব শুরু হয়ে যায়|


মূল্যায়ন

জনৈক ঐতিহাসিক মন্তব্য করেছেন যে, রাজা ষোড়শ লুই অভিজাতদের সামন্ততান্ত্রিক বিশেষ সুবিধা লোপ করতে ব্যর্থ ছিলেন বলেই বিপ্লব ঘটেছিল| কিন্তু এই অভিমত যথার্থ নয়| কারণ অভিজাতদের সুযোগ-সুবিধা করলেই বিপ্লববাদীরা সন্তুষ্ট হতো, একথা বলা যায় না| তাছাড়া রাজা অভিজাতদের উপর নির্ভর করেই রাজতন্ত্র টিকিয়ে রেখেছিলেন| রাজা স্বার্থ ও অভিজাতদের স্বার্থ ছিল অভিন্ন|

তাই ডেভিড থমসন লিখেছেন যে, সুবিধাভোগী শ্রেণী বিশেষ অধিকার ও রাজার শাসনাধিকার একই ভিত্তির উপর স্থাপিত ছিল| এর একটিকে ধ্বংস করলে রাজতন্ত্র ধ্বসে পড়তো| অথচ অভিজাতদের বিশেষ অধিকার বিলোপ না করে বুর্জোয়া ও সাধারণ মানুষকে সন্তুষ্ট করা সম্ভব ছিল না| এমতাবস্থায় বিপ্লব এড়ানোর জন্য প্রয়োজন ছিল সমাজ ও রাজনীতির মধ্যে সাম্য, ন্যায় ও দক্ষতার যথার্থতা প্রয়োগ এবং একাজে রাজাকেই নেতৃত্ব দিতে হতো| কিন্তু সেই দক্ষতা বা ব্যক্তিত্বও রাজা ষোড়শ লুই এর ছিল না| তাই পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল থেকে জটিলতর হয় এবং এবং বিপ্লব অনিবার্য হয়ে পড়ে|


তথ্যসূত্র

  1. অধ্যাপক গোপালকৃষ্ণ পাহাড়ি, "ইউরোপের ইতিবৃত্ত"
  2. Georges Lefebvre, "The French Revolution".
  3. Hilaire Belloc, "The French Revolution".

সম্পর্কিত বিষয়

সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ| আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো| আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন|
                     .......................................

    Need Help..?

    Ask Questions - (click here)

    Mock Test

    Visit our Mock Test Episodes - (click here)

    Share this post with your friends

    Like and support our Facebook page
    Previous
    Next Post »