সাঁ-কুলোৎ

কৃষক ব্যতীত তৃতীয় এস্টেটের বাকি অংশ "সাঁ-কুলোৎ" নামে পরিচিত| সাঁ-কুলোৎ কথাটির আভিধানিক অর্থ হলো, "যারা বাসস্থান পায় না"| শহরের নিচু তলার এইসব মানুষ ছিল দরিদ্র, নিরক্ষর এবং কর্মহীন|

সাঁ-কুলোৎ
দরিদ্র

সাঁ-কুলোৎ
মহল্লা বা বস্তি


কায়িক শ্রম নির্ভর এই সাঁকুলোৎ শ্রেণীর অন্তর্ভুক্ত ছিল পত্রবাহক, দিন মজুর, মুটে, জলের ভিস্তি বাহক, বাগানের মালি, জেলে, রাজমিস্ত্রি, গৃহ ভৃত্য প্রভৃতি সাধারণ পেশার মানুষ| 

প্যারিস শহরের জনসংখ্যার অধিকাংশ ছিল এই সকল সাঁকুলোৎ শ্রেণীর ভুক্ত| 1789 সালে এই শহরে 6 লক্ষ থেকে 6.5 লক্ষ লোকের বাস ছিলো, যার মধ্যে অভিজাত, যাজক ও বুর্জোয়াদের সংখ্যা ছিল যথাক্রমে 5 হাজার, 10 হাজার এবং 1 লক্ষ 5 হাজার| বাকি সকলেই ছিল এই সাঁকুলোৎ শ্রেণীভুক্ত| 

শহরবাসী এই গরীব মানুষের একটা বড় অংশই আসত গ্রাম থেকে| এরা শহরের নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে বাস করতো|  যখন এদের কোন কাজ থাকত না, তখন অনেকেই হয় ভিক্ষা করতো, নয় অসামাজিক কাজ-কর্মে লিপ্ত থাকতো| ছোট-খাটো গন্ডগোল বাধাতে এটা ছিল ওস্তাদ| বাস্তিল দুর্গের পতনে অথবা ভার্সাই শহরের মিছিলে যোগদান করে রাজতন্ত্রের পতনে এরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল|


তথ্যসূত্র

  1. Frank McDonough, "Conflict, Communism and Fascism".
  2. Ghosh Peu, "International Relations".

সম্পর্কিত বিষয়

সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ| আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো| আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন|
                     .......................................

    Note:- Please share your comment for this post :

    :

    --Click here:--

    .

    Share this post with your friends

    please like the FB page and support us

    Previous
    Next Post »

    Top popular posts