বয়কট আন্দোলনের উৎপত্তি

1905 খ্রিস্টাব্দে 16 ই অক্টোবর বঙ্গভঙ্গের সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হলে, ঐ দিন বাংলার নেতৃবৃন্দ এক প্রতিবাদী সভার আয়োজন করেন| 16 ই অক্টোবর দিনটিকে আবার জাতীয় শোক দিবস বলা হয়ে থাকে এবং সারা দেশে সেই দিন হরতাল পালিত হয়|

বয়কট-আন্দোলনের-উৎপত্তি
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর 


বিশ্ব কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এই দিনটিকে "রাখি বন্ধন দিবস" হিসাবে গ্রহণ করে| তাঁর নেতৃত্বে শুরু হয় বিশাল শোভাযাত্রা এবং সেখানে প্রধান দুটি কর্মসূচিকে প্রাধান্য দেওয়া হয়, যথা- 
  1. স্বদেশী
  2. বয়কট
বয়কট বলতে শুধুমাত্র বিদেশি দ্রব্য বর্জন নয়, বিদেশি আদর্শ ও আদব-কায়দা বর্জন| বিদেশি দ্রব্যের প্রতি জনসাধারণের বিতৃষ্ণা জমতে থাকলে স্বদেশী দ্রব্যের চাহিদা বৃদ্ধি পেতে থাকে এবং এই সিদ্ধান্তকে জাতীয় রূপ দিতে এগিয়ে আছে ভারতীয় শিক্ষক-শিক্ষিকা, মহিলা, নাপিত, উকিল, ডাক্তার প্রভৃতিরা|

এর আগেও 1905 খ্রিস্টাব্দে 7 ই আগস্ট কলকাতায় টাউন হলে জাতীয় সম্মেলনে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়, কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয় যে এই জাতীয়তাবাদী উপায় 16 ই অক্টোবর এর পর থেকে হয়|


তথ্যসূত্র

  1. সুমিত সরকার, "আধুনিক ভারত"
  2. শেখর বন্দ্যোপাধ্যায়, "পলাশি থেকে পার্টিশন"
  3. Ishita Banerjee-Dube, "A History of Modern India".

সম্পর্কিত বিষয়

  1. গান্ধীজীর ধারণায় হিন্দ স্বরাজ ও সম্প্রীতি তত্ত্বাবধান (আরো পড়ুন)
  2. সম্পদের বহির্গমন তত্ত্ব এবং এটি কিভাবে বাংলার অর্থনীতিকে প্রভাবিত করেছিল  (আরো পড়ুন)
  3. ১৮৫৮ সালের ভারত শাসন আইন  (আরো পড়ুন)
  4. ঊনবিংশ শতকে নারী সংক্রান্ত সমস্যা (আরো পড়ুন)
সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ| আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো| আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন|
                     .......................................

    Note:- Please share your comment for this post :

    :

    --Click here:--

    .

    Share this post with your friends

    please like the FB page and support us

    Previous
    Next Post »

    Top popular posts