বাংলার নবজাগরণের চরিত্র ও প্রকৃতি

ঔপনিবেশিক শাসন প্রতিষ্ঠা ও পাশ্চাত্য শিক্ষার প্রসারের ফলে উনিশ শতকের বাংলায় সংস্কৃতি ও চিন্তায় যে সুদূর পরিবর্তন এসেছিল, তাকে সমসাময়িক পন্ডিত ও তার পরবর্তীকালের ঐতিহাসিকরা "বাংলার নবজাগরণ" বা "Bengal Renaissance" বলে আখ্যায়িত করেছেন| আবার এই নবজাগরণ বা রেনেসাঁসের প্রকৃত চরিত্র নিয়ে, তার সীমাবদ্ধতা নিয়ে, এবং এটি আদৌও নবজাগরণ ছিল কিনা, তা নিয়ে সাম্প্রতিককালের পন্ডিত ও ঐতিহাসিকের মধ্যে বিতর্কের শেষ নেই|

বাংলার-নবজাগরণ
ব্রিটিশ পতাকা



উনিশ শতকের পেক্ষাপটে রেনেসাঁস কথাটি প্রথম কে ব্যবহার করেছিলেন, তা বলা খুব কঠিন| বিপান চন্দ্র ইতালি ও বাংলার রেনেসাঁ সঙ্গে তুলনা করেছিলেন এবং রামমোহন রায়কে চিহ্নিত করেছিলেন তার প্রতিকৃত হিসাবে| 

ঐতিহাসিক যদুনাথ সরকার স্পষ্ট ভাষায় বলেছিলেন, ইংরেজদের দেওয়া সব থেকে বড় উপহার আমাদের উনিশ শতকের নবজাগরণ| আবার অধ্যাপক রমেশ চন্দ্র মজুমদার বাংলার নবজাগরণকে দেখে ছিলেন হিন্দু জাতীয়তাবাদের দৃষ্টিভঙ্গিতে| অন্যদিকে বিনয় ঘোষ মনে করেন, বাংলার নবজাগরণ একটি "অতিকথা মাত্র"| অধ্যাপক বরুণ দে, অশোক সেন, সুমিত সরকার মনে করেন, উনিশ শতকের বাংলায় যা হয়েছিল তা আধুনিকরণ রেনেসাঁস নয়|

অধ্যাপক অমলেশ ত্রিপাঠীর মতে, বাংলার নবজাগরণের প্রেক্ষাপট ও প্রকৃতির সঙ্গে পঞ্চদশ ও ষোড়শ শতকের ইতালি বা ইউরোপীয় রেনেসাঁর তুলনা অর্থহীন| ইউরোপীয় রেনেসাঁর অন্যতম বৈশিষ্ট্য ছিল সামন্ততন্ত্র থেকে ধনতন্ত্রের উত্তোলন| এর ফলে সামাজিক কাঠামোতে এক মৌলিক পরিবর্তন এসেছিল| ব্যবসা-বাণিজ্যের সঙ্গে বণিক শ্রেণী বহন করে নিয়ে এসেছিল এক নতুন জীবনের যাত্রা| হস্তশিল্প থেকে শ্রম শিল্পের উত্তোলনের উৎপাদন ব্যবস্থায় এসেছিল ব্যাপক পরিবর্তন| বৈজ্ঞানিক আবিষ্কার ও যুক্তিবাদী দর্শনের উন্মেষের চিন্তা জগতে এক অভূতপূর্ব আলোড়ন দেখা দিয়েছিল| ফলে ভেঙে পড়ে কুসংস্কারের দুর্গ এবং ধ্বংসের পথে তলিয়ে যায় যাজক সম্প্রদায়|

কিন্তু বাংলার সামাজিক প্রেক্ষাপট ছিল পুরোপুরি আলাদা| এখানে ধনী ভূস্বামী শ্রেণী ব্রিটিশ শাসনের ছত্রছায়ায় নবজাগরণের সূত্রপাত করেছিল| এদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ছিলেন শিক্ষিত ও পাশ্চাত্য ভাবাদর্শে বিশ্বাসী মধ্যবিত্ত সম্প্রদায়| 

অধ্যাপক সুশোভন সরকারের মতে, ইউরোপের মতো বাংলার নবজাগরণের মতাদর্শগত ভিত্তি ছিল উদারপন্থী, যুক্তিবাদী, ধর্মনিরপেক্ষতা এবং মানবতাবাদ| কিন্তু এই বক্তব্য পুরোপুরি মেনে নেওয়া যায় না| সুমিত সরকার বলেছেন, তথাকথিত নবজাগরণের মধ্যে প্রথম থেকে হিন্দুত্ববাদের প্রভাব এবং মুসলিম বিদ্বেষ থেকে গিয়েছিল|

বাংলার-নবজাগরণ
বর্তমানে ভারতের মানচিত্র



ইউরোপীয় রেনেসাঁর সব থেকে বড় উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য আধুনিকতার আগমন| উনিশ শতকের আধুনিকতা ছিল ভারতবর্ষের পরাধীনতার সমর্থনের সঙ্গে থেকে যুক্ত| ব্রিটিশ শাসনের উপযোগিতা সম্পর্কে নবজাগরণের নেতাদের এমন এক মনোভাব ছিল যে, তারা তা অতিক্রম করে এর নগ্ন সাম্রাজ্যবাদী চরিত্রকে দেখতে পাইনি| 

রামমোহন ভারতে ব্রিটিশ পুঁজির অনুপ্রবেশ এমনকি নীলকর সাহেবদের আগমনকে স্বাগত জানিয়েছিলেন| নবজাগরণের মধ্যবিত্ত ও ভদ্র লোকের সাথে গ্রাম ও শহরের অগণিত দরিদ্র মানুষের কোনো সম্পর্কই ছিল না| এরা কোন ব্যাপারে আন্দোলন বা মৌলিক সামাজিক পরিবর্তনের কথা চিন্তা করেনি| তাছাড়া মুসলিম সম্প্রদায় উনিশ শতকের নবজাগরণের মূলস্রোতের বাইরে ছিল বলে এই নবজাগরণ খন্ডিত বা অসম্পূর্ণ রূপ নিয়েছিল|

তবে কিছু সীমাবদ্ধতার পাশাপাশি বাংলার নবজাগরণের বেশ কিছু গঠনমূলক দিক ছিল| তা আমরা কখনোই অস্বীকার করতে পারি না| নবজাগরণের সব থেকে বড় অবদান ছিল সামাজিক কুসংস্কার ও কুপ্রথার বিরুদ্ধে সংগ্রাম| ধর্ম ও সমাজ সংস্কারের পাশাপাশি তাদের আধুনিক দৃষ্টিভঙ্গি ও শিক্ষা বিস্তারে যে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছিল, তা সত্যিই প্রশংসাযোগ্য| পাশ্চাত্য শিক্ষা ও আদর্শ এই যুগের মনীষীদের আকৃষ্ট না করলেও তারা সব সময় পাশ্চাত্যের অন্ধ অনুকরণ করেনি|



তথ্যসূত্র

  1. সুমিত সরকার, "আধুনিক ভারতের ইতিহাস"
  2. Harihara Dasa, "The Indian renaissance and Raja Rammohan Roy".
  3. Sonali Bansal, "Modern Indian History".

সম্পর্কিত বিষয়

  1. ঊনবিংশ শতকে নারী সংক্রান্ত সমস্যা (আরো পড়ুন)
  2. রাজা রামমোহন রায়ের ভূমিকা এবং অবদান (আরো পড়ুন)
  3. সাহিত্য ও শিল্পের উপর রেনেসাঁ এর প্রভাব (আরো পড়ুন)
  4. নবজাগরণ বা রেনেসাঁ কাকে বলে এবং ইউরোপীয় সমাজের উপর এর প্রভাব .(আরো পড়ুন)
সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ| আশাকরি আমাদের এই পোস্টটি আপনার ভালো লাগলো| আপনার যদি এই পোস্টটি সম্বন্ধে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন এবং অবশ্যই পোস্টটি শেয়ার করে অপরকে জানতে সাহায্য করুন|
                     .......................................

    Note: Email me for any questions:

    :-Click here:-.

    Your Reaction ?

    Previous
    Next Post »

    আপনার মতামত শেয়ার করুন ConversionConversion EmoticonEmoticon

    Top popular posts